ফিচার্ড পোস্ট

হাওরের ক্ষতিগ্রস্তরা চাল পাবে আরও তিন মাস

অকাল বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হাওরের ছয় জেলার তিন লাখ ৮০ হাজার পরিবারকে আরও তিন মাস চাল দেবে সরকার। আগামী নভেম্বর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত ভিজিএফ কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র কৃষক, মৎস্যজীবীসহ দু:স্থরা এ চাল পাবেন। প্রত্যেক পরিবারকে ৩০ কেজি করে চাল দেয়া হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকদের বরাদ্দপত্র দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সুনামগঞ্জের এক লাখ ৬৮ হাজার পরিবার, কিশোরগঞ্জে ৬৫ হাজার, নেত্রকোণার ৫৮ হাজার, সিলেটের ৫৫ হাজার, হবিগঞ্জে ২৯ হাজার এবং মৌলভীবাজারের পাঁচ হাজার পরিবার এই সহায়তা পাবে।   উল্লেখ্য, চলতি বছর এপ্রিলের শুরুতে পাহাড়ি ঢলে অকাল বন্যায় সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনা, কিশোরগঞ্জ, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সিলেট জেলার বিস্তৃর্ণ হাওরাঞ্চল প্লাবিত হয়। তলিয়ে যায় বোরো ফসল। হাজার হাজার টন মাছ মরে ভেসে উঠে। মাছ খেয়ে মারা যায় হাঁসও।   ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় গত ২৩ এপ্রিল থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত ৩ লাখ ৩০ হাজার পরিবারকে মাসে ৩০ কেজি করে চাল ও ৫০০ টাকা করে দেয় সরকার। পরে এই সহায়তার সময় তিন মাস বাড়িয়ে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত করা হয়। এখন তৃতীয় দফায় নভেম্বর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত তিন মাস সহায়তার সময় বাড়ানো হলো। বরাদ্দপত্র অনুযায়ী সুনামগঞ্জের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ১৫ হাজার ১২০ টন চাল, সিলেটে চার হাজার ৯৫০ টন, নেত্রকোণায় পাঁচ হাজার ২২০ টন, কিশোরগঞ্জে পাঁচ হাজার ৮৫০ টন, হবিগঞ্জে দুই হাজার ৬১০ টন এবং মৌলভীবাজারের ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ৪৫০ টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। নতুন করে বরাদ্দ দেওয়া চাল ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডভিত্তিক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে বিতরণ করতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *