বাংলাদেশ

স্বাস্থ্য খাতে তামাক নিয়ন্ত্রণকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে সরকার: রাষ্ট্রপতি

সরকার টেকসই উন্নয়নে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বদ্ধপরিকর উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, এজন্য স্বাস্থ্যখাতে তামাক নিয়ন্ত্রণকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।   তিনি বলেন, তামাকের ব্যবহার হ্রাস করতে পারলে তামাকজনিত মৃত্যু কমে আসবে এবং জনস্বাস্থ্য ও অর্থনীতির উন্নয়ন হবে।   বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস উপলক্ষে আজ বুধবার এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন। রাষ্ট্রপতি বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস পালনের উদ্যোগকে স্বাগত জানান।   তিনি বলেন, তামাক জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বিশ্বে সকল প্রতিরোধযোগ্য রোগের অন্যতম প্রধান কারণ তামাক। তামাকের কারণে সারাবিশ্বে প্রতি ৬ সেকেন্ডে একজন লোক ক্যান্সার, হৃদরোগ, স্ট্রোক, ডায়াবেটিস, হাঁপানিসহ ফুসফুসের দীর্ঘমেয়াদী নানা রোগে মৃত্যুবরণ করে। এছাড়াও অসুস্থ হয়ে কর্মক্ষমতা হারায়, যার প্রভাব পড়ে তার পরিবার ও সমাজে। তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার জনস্বাস্থ্য ও জাতীয় অর্থনীতির জন্য হুমকিস্বরূপ।   রাষ্ট্রপতি ‘বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস ২০১৮’ উপলক্ষে নেয়া সকল কর্মসূচির সাফল্য কামনা করেন।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *