ফিচার্ড পোস্ট

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যেই খালেদা জিয়ার প্রতি অবহেলা স্পষ্ট: বিএনপি

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দলের কেন্দ্রীয় অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল যে বক্তব্য দিয়েছেন, তাতেই তার প্রতি কারা কর্তৃপক্ষের চরম অবহেলার বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে।    স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার পড়ে যাওয়ার বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষ অবগত নয়। তার ‘মাইল্ড স্ট্রোকের’ বিষয়টিও তারা জানেন না।’ তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ও অসুস্থতা নিয়ে কতটা অবহেলা করা হচ্ছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে সেটা পরিষ্কার হয়ে গেল। কারা কর্তৃপক্ষ সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করছে বলেই বন্দি খালেদা জিয়ার গুরুতর শারীরিক অসুস্থার বিষয়ে ভ্রুক্ষেপহীন থেকেছে। কারাগারে অজ্ঞান হয়ে ৫-৭ মিনিট পড়েছিলেন, অথচ সেটি কারা কর্তৃপক্ষ জানে না। তার মানে এটাই প্রমাণিত হয়, বেগম জিয়া কারা কর্তৃপক্ষের কতখানি অবহেলার শিকার! সরকার বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রতি কতটা অমানবিক তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে ফুটে উঠেছে।   তিনি বলেন, আমরা বারবার উনার অসুস্থতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছি। তার ব্যক্তিগত চিকিৎসকরাও কোন কোন বিষয়ে জরুরি চিকিৎসা দরকার, সে বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু, সরকার ও কারা কর্তৃপক্ষ সব সময় এসব দাবি এড়িয়ে চলছে। এ বিষয়ে এখনো তারা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।   খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা জেনে দেশবাসী গভীরভাবে উদ্বিগ্ন উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ব্যবস্থা না নিয়ে সরকার খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে আরও গুরুতর করে তাকে রাজনৈতিক ময়দান থেকে সরিয়ে দেয়ার চক্রান্ত করছে কিনা তা নিয়ে মানুষের মনে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য দেশনেত্রীর চিকিৎসা নিয়ে টালবাহানারই নামান্তর।   তিনি বলেন, বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি জানাচ্ছি দ্রুত ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করে খালেদা জিয়া চিকিৎসার সুযোগ দিন। একইসঙ্গে ঈদের আগেই তাকে মুক্তি দিন।   ’বঙ্গবন্ধু মেডিকেল নয়, ইউনাইটেডে যেতে চান খালেদা জিয়া’   রবিবার বিকালে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে রিজভী জানিয়েছেন, বিএসএমএমইউতে (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল) বেগম খালেদা জিয়ার যে চিকিৎসা, সেই চিকিৎসার ব্যাপারে উনি সন্তুষ্ট নন। সেখানে তার যথাযথ চিকিৎসা হবে না, সেখানে তিনি চিকিৎসা করাতে চান না, সেখানে তিনি চিকিৎসা নেবেন না। আমরা মনে করি, বিএসএমএমইউতে তার যথাযথ চিকিৎসা হবে না। বেগম খালেদা জিয়াকে ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আমরা আবারও আহ্বান জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *