বিনোদন

সালমানের জামিন হয়নি, জেলে দেখতে গেলেন প্রীতি জিনতা

অন্তত আরও একটা রাত জেলেই কাটাতে হচ্ছে সালমান খানকে। শুক্রবার জোধপুর সেশনস কোর্টে তার জামিনের আবেদনটি উঠেছিল ঠিকই কিন্তু কোনো রায় হয়নি। আগামীকাল শনিবার সালমান খানের জামিনের আবেদনটি নিয়ে রায়   হবে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি।    এদিকে সালমানের পাশে দাঁড়ানোর জন্য আজ জোধপুর সেন্ট্রাল জেলে ছুটে গেছেন প্রীতি জিনতা। বলিউডের ভাইজানের সঙ্গে তার বন্ধুত্ব দীর্ঘ দিনের। প্রীতি একটি সাদা রঙের টুপি পরে যোধপুরে যান। সংবাদমাধ্যমের নজর এড়ানোর চেষ্টা করতেও দেখা যায় তাকে। গাড়ির জানালা কাগজ দিয়ে ঘেরা ছিল। তাই ক্যামেরায় প্রীতির ছবি ধরা পড়েনি। প্রায় আধঘণ্টা জেলে সালমানের কাছে ছিলেন প্রীতি।   কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় সালমান খানকে বৃহস্পতিবার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। পরে জোধপুর সেশনস কোর্টে জামিনের জন্য আবেদন করেছিলেন সালমানের আইনজীবীরা।    জামিনের আবেদনে সালমানের আইনজীবী হস্তিমল সারস্বত বলেন, এই মামলা সাজানোর জন্য সরকারি কৌঁসুলি ভুয়া সাক্ষী দাঁড় করিয়েছেন। সালমানের জামিনের দাবি জানিয়ে তিনি সব মিলিয়ে মোট ৫৪টি কারণ তুলে ধরেন। কিন্তু আদালত জানায়, বিষয়টি নিষ্পত্তি করা হবে আগামীকাল শনিবার।    জেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, ফিল্মস্টার হলেও সালামনকে বাড়তি কোনো সুবিধা দেয়া হবে না। তাকে থাকতে হবে সাধারণ অপরাধীর মতোই। ধর্ষণে অভিযুক্ত ধর্মগুরু আসারাম বাপুর সঙ্গে জোধপুর সেন্ট্রাল জেলের একই ওয়ার্ডে রয়েছেন সালমান। গতকাল রাতে তাকে খেতে দেয়া হয়েছিল মোটা রুটি, ডাল এবং তরকারি। আজ সকালে দেয়া হয় খিচুড়ি। কিন্তু বিলাসী জীবনে অভ্যস্ত ‘ভাইজান’কিছুই মুখে তুলতে চাইছেন না।   অন্যদিকে মহেশ বোরা নামের এক আইনজীবীর দাবি করেছেন, সালমানের হয়ে মামলা লড়ায় তাকে গতকাল রাতে দুবাই এবং অস্ট্রেলিয়া থেকে ফোন করে হুমকি দেয়া হয়েছে। আনন্দবাজার    

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *