প্রবাস

শেখ হাসিনার আগমন উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের টাউন হল মিটিং

  জাতিসংঘের অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে যাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর এই আগমনকে উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের মাঝে ব্যাপক প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। প্রায় প্রতিদিনই চলছে সভা-সমাবেশ। এসব সভা-সমাবেশ থেকে দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভ্যর্থনা সফল করার প্রত্যয় ব্যক্ত করা হচ্ছে।   স্থানীয় সময় রবিবার নিউইয়র্কের জ্যামাইকায় অনুষ্ঠিত হয় টাউন হল মিটিং। এতে সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান। তিনি বলেন, 'বাংলাদেশকে একটি উন্নত সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে ভোটের মাধ্যমে পুনরায় আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে।' আওয়ামী লীগ পুনরায় ক্ষমতায় যেতে না পারলে প্রবাসীরা দেশে যেতে পারবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।   যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সহ-সভাপতি আকতার হোসেন, সৈয়দ বসারত আলী, মাহবুবুর রহমান ও আবুল কাসেম, উপদেষ্টা ডা. মাসুদুল হাসান, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সম্পাদক নিজাম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান ও আব্দুর রহিম বাদশা, প্রচার সম্পাদক হাজী এনাম (দুলাল মিয়া), মুক্তিযোদ্ধাবিষযক সম্পাদক মোজাহিদুল ইসলাম চৌধুরী, ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক জাহাঙ্গীর হোসেন, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক আশরাফুজ্জামান, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক মিসবাহ আহমেদ, উপ-দপ্তর সম্পাদক আবদুল মালেক, উপ-প্রচার সম্পাদক তৈয়বুর রহমান টনি, কার্যকরী সদস্য শাহানারা রহমান, শামসুল আবদীন, আসাফ মাসুক, খোরশেদ খন্দকার ও আবদুল হামিদ, সরাফ সরকার, যুক্তরাষ্ট্র জাসদের সভাপতি আবদুল মুসাব্বির, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী প্রমুখ।   উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের চলতি ৭২তম অধিবেশনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতা হিসেবে ১৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে নিউইয়র্কে যাচ্ছেন। এদিন তাকে এয়ারপোর্টে অভ্যর্থনা জানানো হবে। ১৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে টাইমস স্কয়ারের ম্যারিয়ট মার্কি হোটেলের বলরুমে প্রধানমন্ত্রীকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হবে। ২১ সেপ্টেম্বর দুপুরে জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য উপস্থাপনের সময় বাইরে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শান্তি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *