বাংলাদেশ

শান্তিনিকেতনে শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা হবে মমতার

শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা হবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। এখনো পর্যন্ত ঠিক রয়েছে ২৫ মে শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবন-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন মমতা ব্যানার্জি। তবে পরের দিন অর্থাত্ ২৬ মে কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে শেখ হাসিনাকে ডি লিট দেওয়া হবে, সেই অনুষ্ঠানে তিনি সম্ভবত থাকছেন না। ২৫ মে শান্তিনিকেতন থেকেই সরাসরি মমতা ফিরে আসতে পারেন কলকাতায়।   তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে জানা গেছে, শেখ হাসিনার সঙ্গে মমতা ব্যানার্জির খুব ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক। সেই সম্পর্কের টানেই শান্তিনিকেতনে বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন তিনি। বাংলাদেশ ভবন উদ্বোধনের আগে-পরে সুবিধা মতো সময়ে মমতা শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলবেন। স্বাভাবিকভাবেই আলোচনায় উঠে আসতে পারে তিস্তা চুক্তি প্রসঙ্গটি। উঠতে পারে বাংলাদেশ থেকে পশ্চিমবঙ্গে ইলিশ আমদানির বিষয়টিও।   তবে শান্তিনিকেতনে গেলেও মমতা ব্যানার্জি বিশ্বভারতীর সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন কি না, তা এখনো অনিশ্চিত রয়েছে। মমতার তরফ থেকে এখনো সম্মতি জানানো হয়নি। মঙ্গলবারই কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বেঙ্গালুরু উড়ে গেছেন মমতা ব্যানার্জি। বুধবার শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান। জানা গেছে, বেঙ্গালুরু থেকে ফিরে বিশ্বভারতীর সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন মমতা।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *