বাংলাদেশ

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে জাতিসংঘের সহযোগিতা চেয়েছেন রাষ্ট্রপতি

  রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ বলপ্রয়োগে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রাখতে জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।   রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জানান, ‘হামিদ বলেছেন বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ দেশ বাংলাদেশের জন্য রোহিঙ্গা ইস্যু একটি বড় সমস্যা।'   জাতিসংঘের কো-অর্ডিনেটর ও ইউনাইটেড ন্যাশনস ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের (ইউএনডিপি) আবাসিক প্রতিনিধি রবার্ট ডি ওয়াটকিনস আজ মঙ্গলবার বিকেলে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে আবদুল হামিদ এ আহ্বান জানান।   মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর নৃশংসতার শিকার হয়ে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গার বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়ার ঘটনা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিভিন্ন সময়ে সোচ্চার হওয়ায় জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ভূমিকার প্রশংসা করেন। সম্মান ও মর্যাদার সঙ্গে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার সহায়তা ও সমর্থন কামনা করেন রাষ্ট্রপতি।   সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এমডিজি) অর্জনে বাংলাদেশকে সহায়তা দেয়ার জন্য জাতিসংঘকে ধন্যবাদ জানিয়ে রাষ্ট্রপতি হামিদ আশা প্রকাশ করেন যে, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনেও সংস্থাটির সহায়তা অব্যাহত থাকবে।   জাতিসংঘ কো-অর্ডিনেটর তার দায়িত্ব পালনকালে সার্বিক সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ জানান।   ওয়াটকিনস বলেন, আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশে ইউএনডিপি’র সহায়তা অব্যাহত থাকবে। তিনি বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের ভূমিকা ও মানবিক কার্যক্রমের প্রশংসা করেন।   জাতিসংঘ কর্মকর্তা বলেন, ইউএনডিপি বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনের সক্ষমতা বাড়াতে কারিগরিসহ সার্বিক সহায়তা দেবে। রাষ্ট্রপতির সংশ্লিষ্ট সচিবরা এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। বাসস  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *