রাজনীতি

রাজধানীতে বৈঠককালে বিএনপির ১৬ নেতাকর্মী আটক

গাজীপুর ও খুলনার মেয়র নির্বাচনের প্রচারণা নিয়ে রাজধানীর বাংলামোটরের রূপায়ন টাওয়ারে বৈঠক করার সময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম শামসুল হুদা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব, সহ-সভাপতি ইউনুছ মৃধাসহ দলের ১৬জন নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশের দাবি, গোপন বৈঠকের অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে।   রবিবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়। আটক হওয়া নেতাকর্মীরা বাংলামোটরের রূপায়ন টাওয়ারের একটি অফিস কার্যালয়ে বসে বৈঠক করছিলেন। পুলিশের রমনা বিভাগের উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, ১৬জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।   বিএনপির দফতর সূত্র জানায়, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম শামসুল হুদা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব, সহ-সভাপতি ইউনুছ মৃধা, গোলাম হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক কেএম জোবায়ের এজাজ, আলমগীর হোসেন, অ্যাডভোকেট ফখরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পটু, কমিশনার রফিকুল ইসলাম রাসেল, সহ-সম্পাদক জামিুলর রহমান নয়নসহ ১৬জনকে আটক করা হয়েছে।   রমনা থানা পুলিশ সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলনের প্রস্তুতি, গাজীপুর ও খুলনার মেয়র নির্বাচন বিষয়ে বাংলামোটরের রূপায়ন টাওয়ারের এসব নেতাকর্মী বৈঠক করছিলেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৈঠকের খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল রূপায়ন টাওয়ারে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।   এদিকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের নেতাদের আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তাদের মুক্তির দাবি জানান। রবিবার রাতে এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কণ্টকমুক্ত করার মাধ্যমে দেশে একদলীয় বাকশালী শাসন সুপ্রতিষ্ঠিত করতেই বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের লাগাতার আটক ও নির্যাতন নিপীড়নকে সর্বব্যাপী করে তুলেছে সরকার। সরকারের নির্দয়-নিষ্ঠুর আচরণে এটি সুস্পষ্ট যে, তারা জোর করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়। আর এজন্য গণতন্ত্রকে নিঃশেষ করে ফেলছে। জনবিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণে সরকার অমানবিক ও অগণতান্ত্রিক পথে হাঁটছে। জনগণকে ভয় দেখাতে তারা সন্ত্রাসের আশ্রয় নিয়েছে। জনগণকে ভয় পাইয়ে দিতে নিষ্ঠুরতার শেষ সীমানা অতিক্রম করেছে। ভয়াবহ দুঃশাসনে জনগণের ক্ষোভকে দমন-পীড়নের মাধ্যমে প্রতিরোধ করতে উন্মাদ হয়ে গেছে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার। সারাদেশে বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের আটকের ধারাবাহিকতায় আজ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি এম শামসুল হুদা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশীদ হাবিব, সহ-সভাপতি মো. ইউনুস মৃধা, গোলাম হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কেএম জোবায়ের এজাজ, আলমগীর হোসেন, অ্যাডভোকেট ফারুকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম পটু, কমিশনার রফিকুল ইসলাম রাসেল, সহ-সাধারণ সম্পাদক জামিলুর রহমান নয়নসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে আটক করা হলো। মিথ্যা ও সাজানো মামলায় কারাবন্দী সম্পূর্ণ নির্দোষ বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে চলমান আন্দোলনকে দমন করার উদ্দেশ্যেই বিএনপিসহ বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম চালানো হচ্ছে এবং গ্রেফতার করা হচ্ছে। কিন্তু এসব নিপীড়ন করে সরকার যেমন জনগণের রোষ থেকে রেহাই পাবে না তেমনি দেশনেত্রীর মুক্তি আন্দোলনকেও বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *