ফিচার্ড পোস্ট

মৌমাছির নতুন প্রজাতি উদ্ভাবনে গবেষণা করুন : কৃষিমন্ত্রী


মধুর চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যে এর উৎপাদন বৃদ্ধি এবং দেশের পরিবেশ ও জলবায়ু অনুযায়ী মৌমাছির নতুন প্রজাতি উদ্ভাবনে গবেষণার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী।    তিনি বলেন, মধুর চাহিদা মেটাতে এর উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য মৌমাছির নতুন-নতুন প্রজাতি আনুন। তবে আমাদের পরিবেশে যে মূল মৌমাছি রয়েছে তাদের টিকিয়ে রাখতে এবং বিভিন্ন নতুন প্রজাতির মৌমাছি উদ্ভাবনে মৌমাছি নিয়ে কাজ করা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গবেষণা বাড়াতে হবে।    রবিবার দুপুরে ফার্মগেটের আ. কা. মু গিয়াস উদ্দীন মিলকী অডিটোরিয়ামে কৃষি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ১৮-১৯ ফেব্রুয়ারি দুই দিনব্যাপী আয়োজিত ‘জাতীয় মৌ মেলা-২০১৮’এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী এই আহ্বান জানান।    মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘নিয়মিত মধু সেবন মানবদেহের দীর্ঘ মেয়াদী সুস্থতার ভিত্তি তৈরি করে। মৌমাছি জীব বৈচিত্র সংরক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। সব বয়সের মানুষ মধু খেতে পারে। মধু উৎপাদনের ক্ষেত্রে বেসরকারি খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।    মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এখন দানাদার খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পন্নতা অর্জন করেছে। এখন আমরা অন্য ফসল উৎপাদনের দিকে গুরুত্ব দিচ্ছি। গুরুত্ব দিচ্ছি বলেই আমরা ২০১৬ সালে প্রথম মৌ মেলার আয়োজন করি। তিনি রাণী মৌমাছিকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণেরও তাগিদ দেন।    কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের (ডিএই) মহাপরিচালক কৃষিবিদ মোহাম্মদ মহসীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মঈনউদ্দীন আবদুল্লাহ, সাবেক প্রতিমন্ত্রী এ এফ এম ফখরুল ইসলাম মুন্সী প্রমুখ বক্তব্য দেন।  বাসস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *