আন্তর্জাতিক

মালয়েশিয়ায় দুই সমকামি নারীকে বেত্রাঘাত

মালয়েশিয়ায় সমকামিতার দায়ে দুই নারীকে বেত্রাঘাত করেছে দেশটির শরীয়া আদালত। সোমবার মালয়েশিয়া উত্তরাঞ্চলীয় তেরেঙ্গানু প্রদেশের এ ঘটনাকে অমানবিক বলছেন মানবাধিকার কর্মীরা। বিবিসি, এনডিটিভি।   তাদেরকে সাদা পোষাক পরিয়ে একটি টুলের ওপর বসানো হয়। এরপর ৬ বার বেত্রাঘাত করা হয়। এ সময় একজন ছিলেন নির্বিকার আর বারবার কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা যায় আরেকজনকে।   চলতি বছরের এপ্রিলে ধর্মীয় পুলিশ তাদেরকে আটক করেছিল।   মালয়েশিয়া সরকার দুই ধরনের আইন অনুসরণ করে। দেশটির শরীয়াহ আদালত কেবল মুসলিমদের ধর্মীয় ও পারিবারিক বিষয়ের বিচার করে। মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, সমকামিতার দায়ে কোন মেয়েকে বেত্রাঘাতের এটিই প্রথম ঘটনা। এর দ্বারা বোঝা যায় মালয়েশিয়ার সমকামি পুরুষরা কতটা হুমকির মধ্যে আছেন।   মালয়েশিয়ান মানবাধিকার সংগঠন উইমেন’স এইড অর্গানাইজেশন বলে, ‘প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে সম্মতিতে যৌন আচরণ হলে সেটিকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা উচিত নয়। বেত্রাঘাতও অমানবিক।’   এক বিবৃতিতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলে, ‘এ ঘটনা যৌন সংখ্যালঘুদের প্রতি বৈষম্যের প্রকাশ। আগের সরকারের মতো মালয়েশিয়ার নতুন সরকারও অমানবিক ও ঘৃণ্য শাস্তিদানকে সমর্থন করছে। যা দুঃখজনক।’  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *