বাণিজ্য

বিএসটিআই’র লোগোযুক্ত বাটখারা ব্যবহার বাধ্যতামূলক হচ্ছে

দেশব্যাপী বাধ্যতামূলকভাবে বিএসটিআই এর লোগোযুক্ত বাটখারা ব্যবহার এবং দৈর্ঘ্য পরিমাপের জন্য মিটার পদ্ধতি চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ২০১৮ সালের জুন মাসের মধ্যে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে। এরপর থেকে বিএসটিআই এর লোগোবিহীন বাটখারা কিংবা মিটারের পরিবর্তে অন্য কোনো পরিমাপক ব্যবহার করলে, দায়িদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন (বিএসটিআই) এর ৩১তম কাউন্সিল সভায় গতকাল এ সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এতে সভাপতিত্ব করেন। সভায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুষেণ চন্দ্র দাস, বিএসটিআই’র মহাপরিচালক মো. সাইফুল হাসিবসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।    সভায় ওজন ও পরিমাপে কারচুপি প্রতিরোধে ডিজিটাল স্কেল চালুর ওপর গুরুত্ব দেয়া হয়। এ ধরনের পরিমাপক ব্যবহারে ব্যবসায়ী মহলে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে এফবিসিসিআই এর সহায়তায় দেশব্যাপী চেম্বার ও অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের নিয়ে উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচি আয়োজনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। পাশাপাশি এ বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে গণমাধ্যমে প্রচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।    সভায় জানানো হয়, সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো থেকে সরবরাহকৃত গ্যাসের পরিমাপের সঠিকতা যাচাইয়ের জন্য বিএসটিআই ইতোমধ্যে একটি প্রকল্পের আওতায় ৭টি সিএনজি মাস্টার মিটার ক্রয় করেছে। এসব মিটারের মাধ্যমে সিএজি ফিলিং স্টেশনগুলোতে ফ্লো-কন্ট্রোলিং ডিভাইস টেম্পারিং করে ভোক্তা সাধারণকে ঠকানো হচ্ছে কী-না তা সরেজমিনে পরীক্ষা করা হবে। একই সাথে তিতাস গ্যাস কোম্পানি থেকে সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো সঠিক পরিমাপে গ্যাস পাচ্ছে কী-না তাও তদারকি করা হবে।   সভায় জননিরাপত্তা এবং ভোক্তা সাধারণের জন্য মানসম্মত পণ্যের নিশ্চয়তা দিতে ২৯টি নতুন পণ্য বিএসটিআইএর বাধ্যতামূলক সার্টিফিকেশন মার্কস (সিএম) লাইসেন্সের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এছাড়া, বেভারেজের নামে এনার্জি ড্রিংকস্ উত্পাদন ও আমদানির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।যেসব প্রতিষ্ঠান এ ধরনের অনৈতিক কাজের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য দ্রুত উকিল নোটিশ প্রেরণের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। সভায় শিল্পমন্ত্রী বলেন, মান নির্ধারণ ও পরীক্ষণের ক্ষেত্রে বিএসটিআই কর্মকর্তাদের নৈতিক মান আরো উন্নত হতে হবে। তিনি ব্যবসায়ী সমাজের সহায়তায় সভায় গৃহিত সিদ্ধান্তগুলো দ্রুত বাস্তবায়নের পরামর্শ দেন।   তিনি তৃণমূল পর্যায়ে ভোক্তা সাধারণের জন্য মানসম্মত পণ্য ও সেবা নিশ্চিত করতে শিল্প কারখানায় আকস্মিক অভিযান পরিচালনার নির্দেশনা দেন।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *