বাংলাদেশ

প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেয়েছে কমিটি


প্রশ্নফাঁসের প্রমাণ পেয়েছে পরীক্ষা মূল্যায়ন কমিটি। তার মধ্যে কোনোটির আংশিক ও একটির পুরোপুরি প্রশ্নফাঁস হয়েছে। এসব মূল্যায়ন করে ২৬ ফেব্রুয়ারি তদন্ত প্রতিবেদন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমা দেবে কমিটি।    প্রতিবেদন জমা দেয়ার আগে ২৫ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৩টায় পুনরায় বৈঠকে বসবেন বলে জানিয়েছেন কমিটির আহ্বায়ক শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর।    সচিব বলেন, এ পর্যন্ত দেখা প্রশ্নপত্রের কোনোটির আংশিক আবার কোনটি হুবহু মিলে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেছে। আর একটি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র হুবহু মিলে যাওয়ায় সেই পরীক্ষা বাতিলের সুপারিশও করা হবে। তবে এটি পুরোপুরি বাতিল হবে নাকি আংশিক বাতিল হবে সে সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।    রবিবার এসএসসি পরীক্ষা মূল্যায়ন কমিটির দ্বিতীয় দিনের সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা জানান।    সচিব বলেন, প্রশ্নফাঁসের সঙ্গে জড়িত প্রতিনিয়ত নতুন নতুন নম্বর ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিংক পাওয়া যাচ্ছে। সেসব যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। এতে অনেক ভিআইপির নম্বর পাওয়া যাচ্ছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের নজরদারিতে রেখেছে। সব বিষয় মূল্যায়ন করে সুপারিশ করা হবে।   তিনি বলেন, অধিকাংশ প্রশ্নফাঁসের সঙ্গে মূল প্রশ্নের মিল খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে কয়েকটি পরীক্ষার প্রশ্নের সঙ্গে এমসিকিউয়ের মিল পাওয়া গেছে। আর একটি পরীক্ষার পুরোপুরি মিল পাওয়া গেছে। এসবের কারণে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে কতটা প্রভাব পড়েছে তার ওপর ভিত্তি করে সেসব বিষয়ের পরীক্ষা বাতিলের সুপারিশ করা হবে।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *