আন্তর্জাতিক

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন বিপ্লব

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, রাজ্যপাল তথাগত রায়ের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। একই সঙ্গে শপথ নিয়েছেন উপ-মুখ্যমন্ত্রী যিষ্ণু দেববর্মাও। শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিসভার অন্য সদস্যরা।   ত্রিপুরার নবম মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন বিপ্লব কুমার দেব। সিকি শতকের বাম জমানার অবসানের পরে শুক্রবার আগরতলার অসম রাইফেলস গ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী পদে বিপ্লবকে শপথবাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল তথাগত রায়। তার সঙ্গেই শপথ নিয়েছেন উপ-মুখ্যমন্ত্রী যিষ্ণু দেববর্মাও।   এ দিন আরও যে সাত জন মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন, তাদের মধ্যে আছেন বিজেপির নির্বাচনী জোটসঙ্গী আইপিএফটি-র (ইন্ডিজেনাস পিপল’স ফ্রন্ট অফ ত্রিপুরা) সভাপতি নরেন্দ্র চন্দ্র দেববর্মা ও আর এক নেতা মেবার জমাতিয়া। তারা ছাড়াও রয়েছেন কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে আসা রতনলাল নাথ ও সুদীপ রায়বর্মন। শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। বিজেপি নেতা রাম নাথ ও বিপ্লব দেব তাকে অনুষ্ঠানে আসার আমন্ত্রণ জানিয়ে এসেছিলেন। বিজেপি নেতৃত্ব আগেই জানিয়েছিলেন, তারা অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণভাবেই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান করবেন। উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও বেশ কয়েক জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, মুখ্যমন্ত্রী ও দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। ঘোষণা মোতাবেক এ দিনের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন দলীয় সভাপতি অমিত শাহ, লালকৃষ্ণ আদভাণী, মুরলী মনোহর জোশী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ প্রমুখ।   প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এখন যারা বিরোধী আসনে বসেছেন, তারা দীর্ঘ দিন শাসন ক্ষমতায় ছিলেন। তারা নিঃসন্দেহে অনেক অভিজ্ঞ। উল্টো দিকে, আমাদের এই দল নতুন, তুলনায় অভিজ্ঞতা কম।’ তার ভাষণে নরেন্দ্র মোদী বলেন, ‘এটা ত্রিপুরার এক ঐতিহাসিক দিন। যেন মনে হচ্ছে ত্রিপুরা দেওয়ালি পালন করছে।’  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *