খেলা-ধূলা

ওয়ানডে দলে সুযোগ পেয়ে অবাক নতুন অধিনায়ক পাইন

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন ওয়ানডে সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার দলকে নেতৃত্ব দিবেন নতুন দলনেতা ও উইকেট রক্ষক টিম পাইন। অথচ অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে দলে সুযোগ পাবেন এমনটি আশাও করেননি তিনি। পাইন বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে দলে ফিরতে পারবো, এমন চিন্তা আমার মাথায় ছিলো না। দলে সুযোগ পেয়ে বেশ অবাক হয়েছি। এর মধ্যে আবার অধিনায়কের দায়িত্বও পেয়েছি। চেষ্টা করবো দলের জন্য নিজের সেরাটা উজাড় করে দিতে।’   ২০০৯ সালে ওয়ানডে ও টি-২০ অভিষেক ঘটে পাইনের। পরের বছর টেস্ট আঙ্গিনায় পা রাখেন তিনি। কিন্তু জাতীয় দলের জার্সি গায়ে নিজের সেরাটা দিতে পারেননি পাইন। ১৩ টেস্টে ৬৯৪ রান, ৩০ ওয়ানডেতে ৮৫৪ রান ও ১২ টি-২০ ম্যাচে ৮২ রান করেছেন।    ২০১১ সালের পর চলতি বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জন্য অস্ট্রেলিয়া দলে সুযোগ পান পাইন। ঐ সিরিজের আগে নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ার নিয়ে কোন পরিকল্পনাই ছিলো না তার। কিন্তু ঐ সফরের চার ম্যাচে ১১৭ রান করেন এই ডান-হাতি ব্যাটসম্যান। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজের জন্য দলে নিজের জায়গা ধরে রেখেছেন পাইন। শুধুমাত্র জায়গাই ধরে রাখেননি তিনি, অস্ট্রেলিয়ার দলের অধিনায়কত্বও করবেন পাইন। এতে বেশ অবাক হয়েছেন পাইন, ‘অবশ্যই যা হয়েছে অবাক হবার মতোই। চলতি বছরের শুরুতে আমাকে বলা হয়েছিলো, আমি আগামী বিশ্বকাপের পরিকল্পনায় নেই। সেখানে আগের সফরের পর নিজের স্থান ধরে রাখতে পেরেছি। এমনকি অধিনায়কত্বের দায়িত্বও দেয়া হয়েছে আমাকে।’   সর্বশেষ দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলেও ছিলেন পাইন। বল টেম্পারিং কেলেঙ্কারির জন্য কেপ টাউনে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে ভারপ্রাপ্ত অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেন পাইন। এবার ওয়ানডে দলের দায়িত্বও পেয়েছেন তিনি, ‘আমাকে বলা হয়েছে, এটি অন্তর্বর্তীকালীন দায়িত্ব। কিন্তু আমি দলে আছি এবং আমিই দলের অধিনায়ক। তাই আমার লক্ষ্য যতদিন সম্ভব খেলে যাওয়া এবং দলকে সেরাটা দেয়া। আমি চাই, আগামী বিশ্বকাপে দলে আমার জায়গা পাকাপোক্ত করতে। এটি আমার জন্য সবচেয়ে বড় সুযোগ। এজন্য আমাকে ওয়ানডেতে আরও ভালো পারফরমেন্স করতে হবে।’ বাসস।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *