বাংলাদেশ

‘উন্নয়নশীলের পর বাংলাদেশকে জিএসপি প্লাস সুবিধা দেবে ইইউ’

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশ এলডিসি থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বাংলাদেশকে জিএসপি প্লাস সুবিধা প্রদান করবে। এ জন্য যে সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে হয়, তা যথাসময়ে সম্পন্ন করবে বাংলাদেশ।   আজ সোমবার বাংলাদেশ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত রেনজি টেরিংকের সাথে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।   বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চলতি মাসের ২৪ তারিখ ব্রাসেলসে সাসটেইনেবিলিটি কমপ্যাক্ট মিটিং অনুষ্ঠিত হবে। মিটিংয়ে অফিসিয়াল এবং ব্যবসায়ীদের নিয়ে বাংলাদেশের ২১ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল অংশগ্রহণ করবে। এ মিটিং বাংলাদেশের তৈরিপোশাক রপ্তানির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ক্রেতাদের শর্ত মোতাবেক বাংলাদেশ ইতোমধ্যে শ্রম আইন এবং ইপিজেড শ্রমিক আইন একইভাবে সংশোধন করেছে। একটি কারখানার ৩০ ভাগ শ্রমিকের পরিবর্তে ২০ ভাগ শ্রমিক চাইলেই এখন শ্রমিক সংগঠন তৈরি করতে পারবে। শ্রমিকদের অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।   তোফায়েল আহমেদ বলেন, অপ্রত্যাশিত রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর বিগত ৫ বছরে বড় ধরনের কোন দুর্ঘটনা ঘটেনি। বাংলাদেশের তৈরিপোশাক কারখানাগুলো এখন বিগত যে কোন সময়ের চেয়ে নিরাপদ ও কর্মবান্ধব। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থার জরিপে দেখা গেছে, বাংলাদেশের তৈরিপোশাক কারখানাগুলোর ত্রুটির পরিমাণ দুই শতাংশের কম, যেখানে ২ শতাংশের বেশি আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য। এটা বাংলাদেশের জন্য বড় অর্জন। বাসস।  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *